ইবি’র বর্তমান উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষের মেয়াদ শেষ ; শিক্ষক-কর্মকর্তারা ফেসবুকে সরব !

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বর্তমান উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষের মেয়াদ শেষ হলো আজ বৃহস্পতিবার। কে হচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আগামী কর্ণধার, এরই মধ্যে তা নিয়ে শুরু হয়েছে নানান জল্পনা-কল্পনা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরের ও বাইরের প্রায় এক ডজন শিক্ষক এ পদের জন্য বিভিন্নভাবে তদবির চালাচ্ছেন বলে শোনা যাচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়, ইউজিসি কাছেও চলছে নিয়োগ প্রত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপ।

নতুন উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষ নিয়োগকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাস হয়ে উঠছে সরগরম। তবে করোনার কারণে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় ক্যাম্পাসের তুলনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হয়ে উঠেছে আলোচনার প্রধান মাধ্যম। গুরুত্বপূর্ণ এ দুই পদকে ঘিরে বর্তমানে প্রকাশ্যে বিভক্ত শিক্ষক-কর্মকর্তা কর্মচারীরা।

উপাচার্য নিয়োগকে ঘিরে বর্তমানে দু’টি গ্রুপের মধ্যে চলছে কাদা ছোড়াছুড়ি। এক পক্ষ চাইছে, ১৩তম উপাচার্য হিসেবে বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারীর পুনর্নিয়োগ। অপরপক্ষটি চাইছে, কোনোভাবেই যেন অধ্যাপক আশকারী উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেতে না পারেন।

উপাচার্যের পক্ষে অবস্থানকারী শিক্ষকরা শেষ সময়ে ব্যস্ত প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারীকে পুনরায় উপাচার্যের চেয়ারে বসাতে। ওপর মহলে আসকারীর সুনাম বৃদ্ধির জন্য ওই শিক্ষক-কর্মকর্তারা ফেসবুকে সরব। অভিযোগ আছে, ওই শিক্ষক-কর্মকর্তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত অন্যন্য শিক্ষক, কর্মকর্তা, ডে-লেবার এমনকি শিক্ষার্থীদের দিয়ে জোড় করে স্ট্যাটাস কমেন্ট করাচ্ছেন।
সবমিলে ইবি উপাচায্য নিয়ে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে।